[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জটিল বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনায় এখন ক্লান্ত ? তাহলে কফি হাউজে আড্ডা দিন। আড্ডার বিষয়বস্তু হতে পারে সংগীত, চলচ্চিত্র বা মজার কোন কিছু...
Post Reply
User avatar
কারিগর
সমন্বয়ক
Posts: 2439
Joined: Mon Mar 31, 2008 6:57 am
রক্তের গ্রুপ: A+
লাইসেন্স: সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
স্ট্যাটাস: ক্লান্ত,আহত, প্রায় নিহত, বিরক্ত, কিছু সঞ্জীবনী টিকা দরকার!
পছন্দ করি: মানুষকে বলা যায় এরকম সব কিছুই!
Location: লন্ডন , ইংল্যান্ড

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by কারিগর » Sat Apr 24, 2010 11:08 pm

আমার বাবা সরকারী চাকুরী থেকে অবসর নেবেন আর কিছুদিন পরে। আমার মায়ের বয়স-ও সমসাময়িক। বাবা প্রায় ১৫ বছর যাবত বাংলায় লেখালেখি করেন, বলা বাহুল্য উইন্ডোজ ৯৮ এর সময়ে অফিস ৯৭ আর বিজয়® দিয়েই শুরু। গত বছর অভ্র দেখানোর পর উনার অন্যান্য সহকর্মীরা (অপেক্ষাকৃত তরুণ যারা) বেশ আমোদিত হলেও বাবার কথা "এই বয়সে নতুন কিছু শিখবো?" পরের দিন সকালে উঠে দেখি বাসার পুরনো মেশিনে আমার ইনস্টল করা অভ্র দিয়ে আমার অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া ছোট ভাই বাংলা লিখছে।


মেধাবী বনাম বাচ্চা ছেলে:


আমি ওয়ার্ড প্রসেসরে বাংলা লিখি নাই অনেক বছর, কেবল বিজয়® এর ভয়ে। H = ব জাতীয় সমীকরণ কোন কালেই মাথায় ঢুকে নাই। ছোট ভাইয়ের আগ্রহ দেখে আমি বেশ আন্দোলিত। বাবাও একটু ঘেঁটে দেখলেন , বেশ অবাক, Amar কিভাবে "আমার" হয়ে যাচ্ছে। সরল মনে বলে ফেললেন, "উচ্চারণের স্বরের জায়গায় অক্ষর বসানো"।

এমনি ঘটনা ঘটেছিল আমার আরেক বন্ধুর বেলায়। তার বাবার অফিসের গাদা গাদা কাজ বাংলায় বিজয়® দিয়েই হয়। পরক্ষণেই স্বগতোক্তি, "বিজয়® এ এইটা নাই কেন? ওদের মাথায় এতোদিনেও আসে নাই? এতো মেধাবী মানুষের মাথায় আসে নাই? এইটা কারা বানাইলো?" । যখন বললাম আমাদের ব্যাচের-ই একটা ছেলের বানানো, সোজা কথায় অবাক। "আজকালকের বাচ্চা ছেলেপেলেও অনেক চালাক!"

একজন প্রোগ্রামার এলগরিদম লিখেন, কোড লিখেন। কিন্তু, বাণিজ্যিক সফটওয়্যারের ক্ষেত্রে প্রোগ্রামারের হাত-পা থাকে বাঁধা। সুতরাং, আনন্দ মালটিমিডিয়ার স্বত্বাধিকারী যে পরিকল্পনা করবেন সেটাকে কার্যকর করাই বিজয়ের প্রোগ্রামারের কাজ হবে। বাণিজ্যিক না হবার কারণে অভ্র-কীবোর্ড, ইউনিজয়-ফোনেটিক-প্রভাত লে-আউটের ডেভেলোপার পেয়েছেন স্বাধীনতা। একজন পাপ্পানার যেটা করবার সময় ছিল না চাকুরী-র খাতিরে, হাসিন হায়দার-অমি আজাদ-মেহদী হাসান , এরা তাই করেছেন, স্বাধীনতার সুবাদে।


তৃতীয় ভাষা শিক্ষা


আমার মনে আছে, অনেক আগে, যখন ঢাকার শাহজাহানপুরে থাকতাম, গলির মোড়ের একটা ভিডিও-র দোকানে ওরা কম্পিউটার কিনেছিল। কিন্তু, মালিকের খুব বেশি জ্ঞান-গম্যি না থাকায় বিজয়ের অতি সহজ "ক্যারেক্টার ফর্দ" মুখস্ত রাখতে পারে নাই। ফলাফল, নিজের দোকানে কম্পিউটার থাকলেও A4 বাংলা পোস্টার করিয়ে আনতো মেইন রোডের একটা কম্পোজিং এর দোকান থেকে। বয়সের ভারে সেই ভদ্রলোক-ও হয়তো অভ্রকে ভয় পাবেন। কিন্তু, তার ছেলে মেয়েরা মাথা থেকে বাড়তি আরেকটা বর্ণ-মালা শেখা থেকে তো বেঁচে যাবে ফোনেটিক এর বদৌলতে!

ছোটবেলা থেকেই দেখে এসেছি, বাংলাদেশ বাংলা ভাষার পাশাপাশি ইংরেজি শিখানো হয়। কিছু কিছু স্কুলে এবং সকল মাদ্রাসায় বাধ্যতামূলক ভাবে আরবী শেখানো হলেও অফিস আদালতে বাংলা, ইংরেজি-ই ব্যবহার হয়। বিজয়® প্রজন্ম সেখানে শিখেছে, তৃতীয় এক ভাষা, "রোংলা" (রোমান + বাংলা) কিংবা "বাংন" (বাংলা + রোমান)।



ব্রিটিশ ভারতের জমিদার


ব্রিটিশ ভারতের জমিদারগণ শাসক গোস্ঠীর সাথে সদ্ভাব থাকার কারণে প্রজাদের কাছে খুব একটা পছন্দের পাত্র হিসাবে গণ্য হতেন না। এলিফ্যান্ট রোড কিংবা আইডিবি থেকে ন্যূনতম ৪০ হাজার টাকার হার্ডওয়্যার কিনে আরও ৩০ হাজার টাকার (৩-৪০০ ডলারের) উইন্ডোজ কিনে তাতে বৈধ ভাবে নন-পাইরেটেড বিজয়® ব্যবহারের জন্য বাড়তি ৫০০০ টাকা খরচ করাটা আমার কাছে ঐ সব শোষিত জনতার কথাই মনে করিয়ে দেয়। বিজয়® এর পেটেন্ট স্বত্বাধিকারী সে হিসেবে পছন্দের মানুষ হবেন না এটাই স্বাভাবিক।

কিন্তু, সেই সকল রাজা-রাজড়া-রা কিন্তু ঠিকই বড় বড় দিঘি কাটানো কিংবা "লোক দেখানো" দয়া-দাক্ষিণ্য-ও করতেন। পেটেন্ট এর অধিকারীরাও করে থাকেন। অনেকেই পেটেন্ট করে রাখেন স্বীকৃতির জন্য এবং এর পর ঝামেলা করেন না। জীবন বাঁচানো সীট বেল্টের "ধারণা"-কে পেটেন্ট ভলভো কোম্পানি করতেই পারতো। তাই বলে সব গাড়ি নির্মাতাকে নিশ্চয়ই সীটবেল্টের "ধারণা"-র ব্যবহারের জন্য টাকা দিতে হয় না!

বিজয়® এর পেটেন্ট রক্ষার্থে অভ্রের বিরুদ্ধে মিথ্যে অপবাদ না দিয়ে বরং বিজয়® লে-আউটকে যথেচ্ছ ব্যবহারের সুযোগ দিলে লোখের কাছে বিজয়® এর পেটেন্টধারী আরও বেশি সমাদৃত হতেন। তিনি বা তাঁরা হয়তো ভুলে যাচ্ছেন, আজকে যদি কোন এক দৈব সূত্রে মেহদী হাসান খান ১০ কোটি টাকা পেয়ে যান এবং পরে, আনন্দ মালটিমিডিয়াকে দিয়েও দেন, তারপরেও মেহদীর কাছে ইউনিজয় ছাড়াও প্রভাত, মুনীর, ফোনেটিক ,জাতীয় এবং আরও লেআউট থেকে যাচ্ছে। এরকম ঘটনা ঘটলে ইতিহাসের কাছে আনন্দ মালটিমিডিয়ার স্বত্বাধিকারী নেহায়েত-ই একজন লোভী হিসাবেই চিহ্নিত হবেন। নায়ক নয় বরং খলনায়ক হিসাবেই চিহ্নিত হবে।



বিজয়® এর জয়ধ্বনি এবং বিজয় এর জয়ধ্বনি


কয়েকবছর আগে, ব্রিটেইনের একটি ফুটবল ক্লাব, যার নাম রেজিস্টার্ড ট্রেডমার্ক ছিল না, সেই নাম টি একজন আগ্রহী মানুষ, রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করেন। যেহেতু ঐ নামে কোন প্রতিষ্ঠান রেজিস্টার্ড ছিল না সুতরাং কর্তৃপক্ষ তাকে রেজিস্ট্রেশন দিয়েও দেয়। এর পরেও বেচারা পড়ে যান বিপাকে।

ফুটবল ক্লাবের ভক্তরা তাকে ধরে চেয়ারম্যান বা সেরকম কোন একটা পদে বসিয়ে দেন। বেচারা ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি।

কয়েকদিন আগে ফেইসবুকে জনাব মোস্তফা জব্বার বেশ গর্বের সাথেই বলেছেন "বিজয়" শব্দটিও রেজিস্টার্ড ট্রেডমার্ক তাই কেউ সেটি ব্যবহার করতে পারবে না। অর্থাৎ, "বিজয়® এর জয়ধ্বনি" এবং "(বাংলাদেশের) বিজয় এর জয়ধ্বনি" এক না হলেও উনার চোখে তা এক।


ইউনি-জয়, ইউনি-বিজয় নয়


বাংলাদেশে কোন একবার নির্বাচনে প্রধান বিরোধী দলগুলো যোগ দিতে অস্বীকার করেছিল। পরে দেখা গেলো, সমুচ্চারিত নামে রাতারাতি অনেক নতুন দলই নির্বাচনে দাড়ালো। জাতীয় নির্বাচনের মত জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে যদি সামান্য শব্দাংশের বদল পুরো দলের জন্ম দেয়, সেখানে "ইউনিকোড জয়" কিভাবে "ইউনিবিজয়" হয় বুঝি না। একুশে-র ইউনিজয় এ কোন "বি" নেই। বাণিজ্যিক নামের লাইসেন্স সামান্য শব্দ বা শব্দাংশের পরিবর্তনের জন্য বদলে যায়। বাংলাদেশেই দেখেছি, "নাবিস্কো" এর যায়গায় ভুল বানানো "নাবিষ্কো" লিখে বিস্কুট বিক্রি হতে। সুতরাং, নামের কারণে ইউনিজয়কে দোষ দেয়া ভিত্তিহীন।

একুশে-র সাইটে পরিষ্কার করে লেখা আছে : We have no affiliation with Mr. Jabbar or with Ananda Computers. সুতরাং, জনসাধারণের ভুল বোঝার কোন কারণ-ই নেই যে ইউনিজয় Ananda Computers এর পণ্য।

আসলে লেখা গুলো পড়ে এমন মেজাজ খারাপ হয়েছিল বোঝাবার ভাষা নেই। ব্যস্ত ছিলাম বলে বলার বা লেখার সময় হয় নি।

শেষ করি একটা মজার ছবি এবং একটি প্রশ্ন দিয়ে। নিচের ছবিটি বিজয় ২০০০ প্রো (যেটি খুললেই জনাব জব্বার এর ছবি দেখায়) থেকে নেয়া:
Image
কষ্ট করে হলেও লেখাগুলো পড়ুন। এবং আমাকে বলুন, কিভাবে প্রথম সার্থক বাংলা কীবোর্ডের জন্মদাতার দাবীকারী একজন ব্যাক্তি তার নিজ প্রতিষ্ঠান থেকেই এমন সফটওয়্যার বাজারজাত করেন, যাতে তার সম্পর্কেই নেতিবাচক মন্তব্য থাকে?

আমি হলে তো ভাই, বুঝি না বুঝি আমার নামে কোন কিছু বিক্রি হবার আগে ঘেঁটে দেখবো।
এটা কি ঠিক এমন হলো না যে, আমি অজ্ঞ এবং মূর্খ, আমার একটি সিডির দোকান আছে, কাউকে দিয়ে সিডি বিক্রির বিজ্ঞাপন লিখিয়ে নিলাম "এখানে সামাজিক ছবি পাওয়া যায়" আর সে লিখে দিলো "এখানে নীল ছবি পাওয়া যায়", আমি হাঁদারামের মত সেটি-ই সেঁটে দিলাম দেয়ালে, আর মহল্লার ভাবীদের বল্লাম আমার দোকানে এসে ভালো ছায়াছবি নিয়ে যাবেন!

আশা করি কেউ না কেউ জবাব দেবেন।
_________________________________________________

সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি , অনিবার্য কারণ বশত আমার পুরনো ব্লগ সাইটটি এখন আর আমি চালাচ্ছি না। উল্লেখ্য যে আমার পুরনো ডোমেইনটি এখন আর আমার মালিকানায় নেই।

ahikmahin
নিবন্ধিত সদস্য
Posts: 12
Joined: Thu Dec 04, 2008 6:18 am

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by ahikmahin » Sun Apr 25, 2010 12:27 am

http://www.youtube.com/watch?v=UrMVnOotPO8" onclick="window.open(this.href);return false;

ইউটিউবের ভিডিওটা খুজে পেলাম ।

ধন্যবাদ আপনার লেখার জন্য।
Best & Cheap Hosting,Domain for BD Click Here || Need custom web work? Hire Us

User avatar
উন্মাতাল তারুণ্য
সমন্বয়ক
Posts: 2944
Joined: Sat Sep 15, 2007 3:48 pm
রক্তের গ্রুপ: O+
লাইসেন্স: by-nc-nd (Creative Commons)
স্ট্যাটাস: অনুগ্রহপূর্বক আমাকে 'techie', 'geek', 'savvy', 'nerd', 'IT expert', 'Linux expert' ইত্যাদি তৈল মর্দিত সম্বোধন করা থেকে বিরত থাকুন।
Location: ২৩°৪২′০″ উত্তর, ৯০°২২′৩০″ পূর্ব
Contact:

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by উন্মাতাল তারুণ্য » Sun Apr 25, 2010 12:38 am

কারিগর wrote:
এটা কি ঠিক এমন হলো না যে, আমি অজ্ঞ এবং মূর্খ, আমার একটি সিডির দোকান আছে, কাউকে দিয়ে সিডি বিক্রির বিজ্ঞাপন লিখিয়ে নিলাম "এখানে সামাজিক ছবি পাওয়া যায়" আর সে লিখে দিলো "এখানে নীল ছবি পাওয়া যায়", আমি হাঁদারামের মত সেটি-ই সেঁটে দিলাম দেয়ালে, আর মহল্লার ভাবীদের বল্লাম আমার দোকানে এসে ভালো ছায়াছবি নিয়ে যাবেন!
ধারালো উদাহরণ!
" 'কত বড়ো আমি' কহে নকল হীরাটি। তাই তো সন্দেহ করি নহ ঠিক খাঁটি॥ " - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

abdul baten
প্রযুক্তি মনষ্ক
Posts: 471
Joined: Sun Apr 26, 2009 9:37 pm
রক্তের গ্রুপ: O+
Location: সিংগাপুর

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by abdul baten » Sun Apr 25, 2010 9:19 am

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ কারিগরদা। এই রকম একটা লেখা আপনার কাছ থেকে আশা করেছিলাম।
Image

User avatar
সৌগতইন
নিয়মিত সদস্য
Posts: 237
Joined: Wed Aug 19, 2009 3:04 pm
রক্তের গ্রুপ: B+
স্ট্যাটাস: উবুন্টু ল্যুসিড লিংকস ১০.০৪
Location: খড়গপুর, ভারত
Contact:

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by সৌগতইন » Sun Apr 25, 2010 12:34 pm

ধন্যবাদ কারিগরদা, এরকম একটা লেখার দরকার ছিল।
Image
Image
Image

omiazad
নিবন্ধিত সদস্য
Posts: 35
Joined: Mon Nov 12, 2007 5:30 pm
রক্তের গ্রুপ: A+
লাইসেন্স: সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Location: দিনাজপুর
Contact:

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by omiazad » Sun Apr 25, 2010 2:46 pm

Well, you must read what Kaku says, please visit http://www.bijoyekushe.net/html/news042404.html with IE. :)

User avatar
কারিগর
সমন্বয়ক
Posts: 2439
Joined: Mon Mar 31, 2008 6:57 am
রক্তের গ্রুপ: A+
লাইসেন্স: সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
স্ট্যাটাস: ক্লান্ত,আহত, প্রায় নিহত, বিরক্ত, কিছু সঞ্জীবনী টিকা দরকার!
পছন্দ করি: মানুষকে বলা যায় এরকম সব কিছুই!
Location: লন্ডন , ইংল্যান্ড

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by কারিগর » Sun Apr 25, 2010 5:03 pm

@অমি ভাই,

ধন্যবাদ লেখাটা পড়ার জন্য। আমার খুব জানার ইচ্ছা, বাংলাদেশের কপিরাইট আইনের পরিমার্জন বা পরিবর্ধন করার জন্য কম্পিউটার সংক্রান্ত বিষয়াবলীর প্রবর্তক কারা? কারা সংজ্ঞায়িত করেছেন সফটওয়্যার বা প্রোগ্রামকে? আমার তো ধারণা, দেশের মাধ্যমিক পর্যায়ে কম্পিউটারে হাতেখড়ি দেয়ার পাঠ্যপুস্তক যারা লিখেছেন বা পাঠ্যক্রম যারা বানিয়েছেন তাদের হাতেই এইসব সংজ্ঞা নির্ধারণের ভার থাকা উচিৎ। সেক্ষেত্রে, জনাব মোস্তফা জব্বার এর অবদান যদি মাথায় রাখি, তাহলে , উনার কথা মানতে আমার আপত্তি আছে। কেননা, Conflict of Interest ঘটবে!

অমি ভাইয়ের কাছে একটি সরাসরি প্রশ্ন, খানিকটা অফটপিক আবার অনটপিক, জনাব মোস্তফা জব্বারের দেয়া রেফারেন্স অনুযায়ী, মাইক্রোসফট উইন্ডোজের কোন একটা ফোল্ডার উইন্ডো খোলার জন্য ডাবল ক্লিক এবং বন্ধের জন্য ক্রস বাটনের ব্যবহার, এ গুলো তো পেটেন্টেড প্রসেস হবার কথা। একই ভাবে Ctrl+X , Ctrl+C, Ctrl+V ইত্যাদি কমান্ড যদি ডস থেকে এসে থাকে তাহলে নন-মাইক্রোসফট প্লাটফর্মের নিশ্চয়ই তাহলে কোন অনুমতি নেই ব্যবহার করার। তাহলে তো ডেবিয়ান বা অন্যান্য ঘরানার লিনাক্স অপারেটিং সিসটেম তাদের কপিরাইট/পেটেন্ট লংঘণ করছে। আবার নতুন উবুন্তু তে ম্যাকের অনুকরণে কিছু অলংকরণ এসেছে।

এখন যদি বাংলাদেশে একটি লিনাক্স ডিস্ট্রো বানানোর কাজ শুরু হয় তাহলে, মাইক্রোসফটের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের কাছ থেকে কোন পর্যায়ে অনুমতি নিতে হবে?

মাইক্রোসফট এর বিতরন করা কিবোর্ড লেআউট ক্রিয়েটর ব্যবহার কি তাহলে জনাব মোস্তফা জব্বারের বিবেচনায় অবৈধ?

মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকে উইন্ডোজের নতুন ভার্সনের সাথে আসা বাংলা কীবোর্ড ইন্টারফেস এ Shift+M = শ , এটি কি জনাব মোস্তফা জব্বারের প্রদত্ত আইনি সংজ্ঞা অনুসারে "আংশিক পুণরুৎপাদন" নয়? সেক্ষেত্রে মাইক্রোসফট কি উনাকে রয়ালটি দিচ্ছে? নাকি বিজয়® এর প্রধান প্ল্যাটফর্ম হিসাবে উনি মাইক্রোসফটকে কিছু বলছেন না, আর ৫ কোটি টাকার ব্যবসা মার যাওয়ায় অভ্রকে এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট "চোর"-দের বিপক্ষে সোচ্চার হয়ে উঠেছেন?

@ সকল পাঠক

দৈনিক সংবাদ এর জন্য লেখা একটি প্রতিবেদনে, জনাব মোস্তফা জব্বার জানিয়েছেন, তার ছবি বিকৃতি, হুমকি, এবং '৭২ সালের বিচিত্রা স্টাইলের মানহানিকর ব্যাপারস্যাপার ঘটছে। নি:সন্দেহে এই কর্মকাণ্ডগুলো অনুচিত হয়েছে। আশা করি আমরা সবাই সুস্থ ভাবে প্রতিবাদ জানিয়ে যাবো, কারো যেন প্রাণ না চলে যায় (যেমনটি জনাব মোস্তফা জব্বারের দেয়া উদাহরণে এসেছে।
_________________________________________________

সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি , অনিবার্য কারণ বশত আমার পুরনো ব্লগ সাইটটি এখন আর আমি চালাচ্ছি না। উল্লেখ্য যে আমার পুরনো ডোমেইনটি এখন আর আমার মালিকানায় নেই।

User avatar
উন্মাতাল তারুণ্য
সমন্বয়ক
Posts: 2944
Joined: Sat Sep 15, 2007 3:48 pm
রক্তের গ্রুপ: O+
লাইসেন্স: by-nc-nd (Creative Commons)
স্ট্যাটাস: অনুগ্রহপূর্বক আমাকে 'techie', 'geek', 'savvy', 'nerd', 'IT expert', 'Linux expert' ইত্যাদি তৈল মর্দিত সম্বোধন করা থেকে বিরত থাকুন।
Location: ২৩°৪২′০″ উত্তর, ৯০°২২′৩০″ পূর্ব
Contact:

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by উন্মাতাল তারুণ্য » Tue Apr 27, 2010 3:16 pm

মোস্তফা জব্বার তার লেখায় কীবোর্ডের প্যাটেন্টের প্রসঙ্গে বলেছেন:
ঙ. কীবোর্ড কি কপিরাইট বা প্যাটেন্ট হয়?
অনেকেই খুব আবেগময় ভাষায় লিখেছেন, বাংলা নিয়ে ব্যবসা করার ব্যাপারে। সাথে বরকত, সালাম, রফিক জব্বারের (মোস্তাফা জব্বারের নয়) নামও যুক্ত করা হয়েছে। এমনও বলা হয়েছে যে, বাংলা লেখার কীবোর্ড প্যাটেন্ট হয় কিভাবে। সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, কীবোর্ড প্রথম প্যাটেন্ট হয় ১৮৭৮ সালে। বর্তমানে প্রচলিত QWERTY কীবোর্ডটি প্যাটেন্ট হয় সোলেস এর নামে। The keyboard arrangement was considered important enough to be included on Sholes' patent granted in 1878, some years after the machine was into production. (Source: http://www.ideafinder.com/history/inventions/qwerty.htm" onclick="window.open(this.href);return false;)
তথ্যটি সম্পূর্ণ নয়। প্রথম প্যাটেন্টকৃত কি-বোর্ড লেআউটটি ছিল একটি টেলিগ্রাফ প্রিন্টারের যেটা ১৮৫৯ সালে প্যাটেন্ট করেন জর্জ মে ফেল্পস এবং ডেভিড এডওয়ার্ড হিউজ। এর আট বছর পর ১৮৬৭ সালে ক্রিস্টোফার লাথাম শোলজ (QWERTY কি-বোর্ডের জনক) তাঁর উদ্ভাবিত প্রথম টাইপরাইটারের কি-বোর্ড প্যাটেন্ট করেন যা ছিল ১৮৫৯ সালে প্যাটেন্ট করা কি-বোর্ডের কি-গুলোই উপরের সারি নিচে আর নিচের কি-গুলো উপরের সারিতে সাজিয়ে। এবং সেটি সে সময়ই পৃথক প্যাটেন্ট পেয়েছিল। এরপর ১৮৫৯ QWERTY -র দু'চারটে কি এদিক ওদিক সরিয়ে কমপক্ষে ৪টি লেআউটের স্বতন্ত্র প্যাটেন্ট হয়েছে ১৮৮২ সালের মধ্যেই।

এই ব্যাপারে আরো বিস্তারিত পাওয়া যাবে এই ব্লগে। আগ্রহীগণ পড়ে দেখতে পারেন।
" 'কত বড়ো আমি' কহে নকল হীরাটি। তাই তো সন্দেহ করি নহ ঠিক খাঁটি॥ " - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

User avatar
কারিগর
সমন্বয়ক
Posts: 2439
Joined: Mon Mar 31, 2008 6:57 am
রক্তের গ্রুপ: A+
লাইসেন্স: সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
স্ট্যাটাস: ক্লান্ত,আহত, প্রায় নিহত, বিরক্ত, কিছু সঞ্জীবনী টিকা দরকার!
পছন্দ করি: মানুষকে বলা যায় এরকম সব কিছুই!
Location: লন্ডন , ইংল্যান্ড

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by কারিগর » Wed Apr 28, 2010 12:58 am

ঘটনার সর্বশেষ অগ্রগতি কি? জব্বার সাহেব কি মামলা করেছেন?
_________________________________________________

সকলের অবগতির জন্য জানাচ্ছি , অনিবার্য কারণ বশত আমার পুরনো ব্লগ সাইটটি এখন আর আমি চালাচ্ছি না। উল্লেখ্য যে আমার পুরনো ডোমেইনটি এখন আর আমার মালিকানায় নেই।

User avatar
জামাল উদ্দিন
নিয়মিত সদস্য
Posts: 253
Joined: Mon Feb 22, 2010 5:55 pm
রক্তের গ্রুপ: AB+
লাইসেন্স: by-nc-sa(Creative Commons)
স্ট্যাটাস: আত্নার শান্তির সন্ধানে ...
পছন্দ করি: লিনাক্স, গুগল ক্রোম, পুরকৌশল, ঘুম !
Contact:

[বিষয়: অভ্র] গলির মোড়ের সিডির দোকান!

Post by জামাল উদ্দিন » Wed Apr 28, 2010 1:28 am

কারিগর wrote:ঘটনার সর্বশেষ অগ্রগতি কি? জব্বার সাহেব কি মামলা করেছেন?
সবকিছু কিছুটা থমকে গেছে চ্যানেল ওয়ান বন্ধের ঘটনায় ...
“The hardest thing of all is to find a black cat in a dark room, especially if there is no cat.” - Confucius
Image

Post Reply

Return to “কফি হাউজ”