Page 1 of 1

ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Thu Jun 18, 2009 4:47 pm
by বাহারাম
ডে লাইট সেইভিং এর মাধ্যমে কিভাবে বিদ্যুতের উপর চাপ কমানো যাবে এব্যাপারে কি কেউ কিছু জানাতে পারবেন?

যদি এরউপর কোন টপিক আগেই থাকে অনুগ্রহ করে লিংক দিয়েন।

ধন্যবাদ।

ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Thu Jun 18, 2009 5:47 pm
by শামীম
এটা আসলে দিনের আলোর সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করে বৈদ্যূতিক আলোর ব্যবহার কমানোর একটা উপায়।

ধরেন সূর্য ওঠে সকালে ৬:৩০ এ আর অস্ত যায় বিকাল ৬:৩০ এ। যদি কেউ সকাল ৯টায় ঘুম থেকে উঠে রাত ১টা পর্যন্ত বিভিন্ন কাজ করে, তাহলে বিকাল ৬:৩০ থেকে রাত ১টা পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ছয় ঘন্টা বৈদ্যূতিক আলো ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা যায়। কিন্তু ঐ ব্যক্তি যদি সকাল ৭ টায় উঠে রাত ১১টা পর্যন্ত কাজ করে তাহলে তার দৈনিক কর্মঘন্টা ঠিক রেখেই দুই ঘন্টার বৈদ্যূতিক আলো সাশ্রয় করতে পারেন (বিকাল ৬:৩০ থেকে রাত ১১টা = সাড়ে চার ঘন্টা)।

এই কাজ যদি একজনের জায়গায় পুরা শহর/দেশজুড়ে সমস্ত লোক করে তবে সকলের বিন্দু বিন্দু বিদ্যূৎ সাশ্রয় থেকে সিন্ধু পরিমান সাশ্রয় হতে পারে, যা আমাদের বিদ্যূৎ চাহিদা পূরণে কিছুটা অবদান রাখবে।

অবশ্য বাংলাদেশের অনেক অফিস ভবনই এমনভাবে তৈরী যে দিনের বেলাতেও আলো জ্বালিয়ে কাজ করতে হয়। তাই একঘন্টা ডে-লাইট সেভিংস করে অফিসে তেমন সাশ্রয় হবে না .... কিন্তু সারাদিন মিলিয়ে একঘন্টার আলো সাশ্রয় হতে পারে।

ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Thu Jun 18, 2009 7:21 pm
by আশাবাদী
ভাই আদৌ কি সূর্যের আলো কিছু ব্যবহার হবে?

আমার ইউনিভার্সিটির উদাহরণই ধরেন। অধিকাংশ ক্লাসই হয় সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত দিনের আলোয়। সেক্ষেত্রেও কি হচ্ছে? সব পর্দা টেনে দিয়ে ঘরে চার/পাঁচটি লাইট জ্বালিয়ে এসি ছেড়ে রাখা হয়। এমনকি সিঁড়ি ঘরে যেখানে সূর্যের আলো এসে পরছে সেখানেও নূন্যতম চারটি বাতি জ্বলছে।

সাধারণ অফিস আদালতেও একই অবস্থা হবে, সব পর্দা টেনে দিয়ে লাইট জ্বালিয়ে রাখা হবে।

এছাড়া আরও একটি বিষয় হচ্ছে আগে সন্ধ্যা থেকে ৭টা-৮টা পর্যন্ত অনেকেই রাস্তায় থাকতো (অফিস থেকে বাসায় ফেরার সময় জামে আঁটকে থাকা অথবা মার্কেটে থাকতো)। এখন সন্ধ্যার সময় থেকেই সবাই বাসায় থাকবে এতে বিদ্যুৎ কনজাম্পশন আরও বেড়ে যাবে।

সব মিলিয়ে পুরো পদ্ধতিটাই আমার বাঁজে মনে হয়েছে।

ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Thu Jun 18, 2009 9:32 pm
by স্বপ্নচারী
আমি এখন যেখানে থাকি, সেখানে আলো বাতাসের কোন কমতি নাই। গ্রীষ্মকালে ভোর হয় পৌণে পাঁচটায় এবং সূর্যাস্ত যায় সাড়ে নয়টায়। এত বড় দিন এবং সূর্যের পর্যাপ্ত পরিমাণ আলো থাকার পরও আমাদের অফিসের কিছু মানুষ সারাদিনই বাল্ব জ্বালিয়ে রাখে। সেই বাল্বের কোন আলোই আসলে কাজে লাগে না। এই বাল্বের তো এত বড় স্পর্ধা নাই যে সূর্যের আলো ছাপিয়ে যাবে।

এটা মানুষের মানসিকতার ব্যাপার। কোন কিছু অপচয় হচ্ছে কি হচ্ছে না, সেটা উপলব্ধি করার ব্যাপার। অফিসে লাইট জ্বললে আমার কোন সমস্যা নাই, বিল তো আর আমি দেই না - এই মানসিকতা ঠিক না হলে লাইট জ্বলবেই।

যাইহোক, এই ডেলাইট সেভিং একটা খুবই ভালো পদক্ষেপ। দিনের আলো যতটুকু পারা যায় ব্যবহারের চেষ্টা করাটা অবশ্যই ভালো বুদ্ধি। প্রতি হাজার অফিসে যদি একটা অফিসেও এক ঘন্টা বিদ্যুৎ বাঁচে, তবুও অনেক লাভ। শপিং সেন্টারগুলোর বিদ্যুৎ ব্যবহার তো অবশ্যই কমবে। না, অত্যাধুনিক শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত শপিং সেন্টার না। আমি বলছি সাধারণ খোলামেলা মার্কেটগুলোর কথা। এভাবে অনেক জায়গায়ই বিদ্যুৎ বাঁচবে।

শুধু এই বিদ্যুৎ বাঁচানোই না। আরও অনেক সুবিধাও হবে এর ফলে। বাচ্চা-কাচ্চারা এক ঘন্টা বেশি সময় পাবে খেলাধুলা করার। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এক ঘন্টা আগে-পিছে নিয়ে আসলে মাথা-ব্যথার কিছু নেই। প্রতি গ্রীষ্মে আমার এখানে এক ঘন্টা বাড়ে, আবার শীতে এক ঘন্টা কমে। আমি কখনও টেরও পাই না, সময় বাড়লো কি কমলো। মানুষ এখন যান্ত্রিক। ঘড়ি যখন যেটা করতে বলে, মানুষ সেটাই করে। ডেলাইট সেভিংস পদ্ধতি নতুন কিছু না। অনেক প্রাচীন, বহুল ব্যবহৃত একটা সফল পদ্ধতি। এটা নিয়ে অযথা মাথা ঘামিয়ে চুল হারানোর কোনই দরকার নাই।

ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Thu Jun 18, 2009 10:38 pm
by মানচুমাহারা
ম্যাংগো টেলিকমের পক্ষ থেকে ইমতিয়াজ রাহী ভাইয়টের গ্রুপ মেইলে পাওয়া তথ্য থেকেঃ

ডে লাইট সেইভিং এর কারণে উইন্ডোজ , লিনাক্স, সার্ভার, রাউটার ইত্যাদিতে এটোমেটিক পরিবর্তন করার জন্য এই লিংকে বেশ সহজ ভাবে বিস্তারিত সাহায্য পাওয়া যাবে।

Re: ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Wed Aug 12, 2015 7:21 pm
by Md.faysal
বিদ্যুৎ এর চাপ কমাতে চেষ্টা করছি কিন্তু দিন দিন যেই হারে বিদ্যুৎ এর হার সরকার বাড়াচ্ছে তাতে মনে হয় আর কয়েকদিন পর ফুল টাইম সেইভিং করতে হবে !!!

Re: ডে লাইট সেইভিং ও বিদ্যুতের চাপ কোমানো।

Posted: Thu Aug 27, 2015 3:19 pm
by sishafiq420
বিদ্যুৎতের চাপ কমানোর উপায় হচ্ছে……












বিদ্যুৎ ব্যবহার না করা।





অন্ধকারে থাকুন & ঘুমান







ফালতু পোস্ট করা বাদ দেন।