গাড়ী কেনার আগে কি দেখবেন?

অটোমোবাইল প্রযুক্তি বিষয়ক আলোচনা।
User avatar
হাসান
প্রদায়ক
Posts: 278
Joined: Tue Oct 02, 2007 1:38 pm

গাড়ী কেনার আগে কি দেখবেন?

Post by হাসান » Mon May 03, 2010 3:12 am

গাড়ী কেনার আগে অনেক কিছু দেখার লিস্টে আরো একটা জিনিস যোগ করতে পারেন সেটা হলো গাড়ী কত কিলোমিটার চলেছে।
এটা আপনি দেখতে পারবেন ড্যাশবোর্ডের অডোমিটার থেকে।
সেই সাথে আগের রেজিস্ট্রেশন বা কেনা বেচার সময় কিলোমিটার কত ছিলো সেটাও দেখে নিবেন।
এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে এই কিলোমিটার দেখে কি হবে?
গাড়ী যত বেশী কিলোমিটার চলবে তত বেশী গাড়ীর ভেতরের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ ক্ষয় হবে কমন একটা আইটেম হলো টাইমিং বেল্ট। এক লাখ কিলোমিটার চলা একটা গাড়ীর টাইমিং বেল্ট আপনি কেনার পরদিনই ছিড়ে যেতে পারে(কপাল খারাপ হলে)।
সেই ক্ষেত্রে আপনি যদি আগেই জানেন তবে সাবধান হয়ে থাকতে পারেন।
টাইমিং বেল্ট ছাড়াও বিভিন্ন সাসপেনশন বুশ , ক্লাচ প্লেট , শক এবজরবার, ব্রেক প্যাড , ডিস্ক ড্রাম , এই জিনিসগুলি গাড়ী চলার সাথে সংশ্লিষ্ট।
সুতরাং যত বেশি কিলোমিটার থাকে অডোমিটারে গাড়ীর দাম তুলনামুলকভাবে তত কম হবে।
আর এই কারনে সারা দুনিয়ায় গাড়ীর অভিজ্ঞজনেরা অনেক গাড়ী বিক্রির আগে কিলোমিটার নিজ হাতে কমিয়ে তারপর ক্রেতাকে দেখান।
৫ লাখ কিলোমিটার চলা গাড়ী কে ২ লাখে নামিয়ে আনা একটা ম্যাজিক ই বলতে পারেন।
এই ফাকিবাজি ধরার জন্য আগের দুই রেজিস্ট্রেশনের কিলোমিটার দেখতে পারেন সামঞ্জস্যপুর্ন কিনা।
গাড়ীর একসিলারেটর ব্রেক প্যাডেল এর দিকে তাকিয়ে দেখতে পারেন প্যাডেল একদম নতুন বা খুব বেশি ক্ষয় হয়ে যাওয়া কিনা।
অনেকে ভাবেন ডিজিটাল কিলোমিটার নাকি বদলানো যায় না কিন্তু বাংলাদেশের অটো ইলেক্ট্রিশিয়ানরা ডিজিটাল অডোমিটার এর কিলোমিটার ও কমিয়ে দেয়াতে এক্সপার্ট।
জীবনের প্রয়োজনে গাড়ী

অনুপ
প্রযুক্তি মনষ্ক
Posts: 1085
Joined: Tue Jan 13, 2009 5:00 pm
লাইসেন্স: সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Location: খুলনা
Contact:

গাড়ী কেনার আগে কি দেখবেন?

Post by অনুপ » Mon May 03, 2010 8:10 am

আমরা তাইলে সব পারি

User avatar
হাসান
প্রদায়ক
Posts: 278
Joined: Tue Oct 02, 2007 1:38 pm

গাড়ী কেনার আগে কি দেখবেন?

Post by হাসান » Fri Jul 16, 2010 11:38 pm

আজকে আপনাদের গাড়ী কেনা বেচার ব্যাপারে আমার কিছু ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করি।
অটোমোবাইল সেক্টরে কাজ করার সুবাদে পরিচিত আধা পরিচিত বা পরিচিতের পরিচিত এমন অনেকের গাড়ী কেনায় সহায়তা করেছি। সেই অভিজ্ঞতার আলোকে গাড়ী কেনার কথা উঠলে সবার আগে প্রথম প্রশ্ন মনে আসে কোথা থেকে কিনবেন আপনার সাধের গাড়ী।
ব্যাক্তিগত ভাবে বিক্রেতার কাছ থেকে নাকি শো-রুম বা গাড়ীর দোকান থেকে।
গাড়ী ব্যাবহারকারীদের মধ্যে কেউ কেউ আছেন শো রুম ছাড়া প্রাইভেট সেলারদের গাড়ী দেখতেই চান না আবার কেউ কেউ আছেন শো-রুমের নামই শুনতে চান না।
প্রাইভেট সেলারের কাছ থেকে গাড়ী কিনলে দামাদামী করে দামের দিক থেকে আপনি অধিকাংশ সময়ই সফল হবেন কিন্তু গাড়িতে কোনো গুপ্ত সমস্যা আছে কিনা সেটা আপনি কয়দিন না চালালে টের পাবেন না আর কয়দিন পরে টের পেলেও তখন আর বলার কিছু থাকবে না।
সেইদিক থেকে শোরুমের গাড়ীতে আপনি হয়ত দামাদামীতে পেরে উঠবেন না কিন্তু শোরুমওয়ালারা সাধারনত টুকাটাকি সমস্যা ঠিক করেই গাড়ী বিক্রি করতে বসে আর কেনার কয়দিন পর সমস্যা হলে তাদের কাছে নিয়ে গেলে তারা হয়ত আপনাকে এমনিতেই ঠিক করে দেবে। যার টেকি টার্ম হলো আফটার সেলস ব্যাকআপ।
এই দিকে থেকে আপনাকে কানে কানে আরেকটা গোপন কথা বলে দেই গাড়ীর দোকানগুলোতে যেহেতু ম্যাকানিকের অভাব নেই সেহেতু তাদের অনেকেই গাড়ীকে এমনভাবে ঠিক করে যাতে ছয় মাস বা বছর খানেক পরে আপনাকে গাড়ী সহ তাদের শরনাপন্ন হওয়া লাগে।
আসলে সমস্যা টা ম্যাকানিকের ও না গাড়ীর কিছু কিছু জিনিস আছে যা দেখে ম্যাকানিক বলতে পারবে জিনিসটা হয়তো মাস ছয়েক ও টিকতে পারে আবার বছর খানেকও চলতে পারে, এখন এই কথা টা যদি আপনাকে বলে তখন আপনি হয়তা আর ওই গাড়ী কিনতে চাইবেন না।
আপনার ভাবনাটা হবে টাকা দিয়ে যখন কিনবোই তখন নষ্ট গাড়ী কেনো কিনবো কিন্তু দুঃখজনক বিষয় হলো ব্র্যান্ড নিউ গাড়ী না হলে পুরাতন গাড়ী নষ্ট না হলে কেউ বিক্রি করতে চায় না।
ব্যাক্তিগত বিক্রেতাদের মধ্যে লাখে একটা গাড়ী পাবেন যাতে কোনো সমস্যা নেই আর সহজভাবে চিন্তা করেন গাড়ী সমস্যা দিচ্ছে দেখেই না গাড়ী বিক্রি করা।
বিক্রির সময় অনেকেই কারন দেখায়
ক্যাশ টাকার দরকার কারন .........
বিদেশে চলে যাচ্ছে
পরিবার বড় হয়ে গেছে গাড়ী আপগ্রেড করতে হচ্ছে
বউ পছন্দ করছে না
পরিবারে মানুষের চাইতে গাড়ী বেশি হয়ে গেছে
কম্পানী/অফিস থেকে গাড়ী দিয়েছে নিজের গাড়ী চালানোর টাইম নাই
কিন্তু আসলে কি তাই?
এইজন্য প্রাইভেট সেলার থেকে গাড়ী কিনলে প্রথমেই বিশ্বস্ত ম্যাকানিককে দিয়ে সার্ভিসিং করিয়ে নিবেন।
এখন আপনার গাড়ীতে যদি কোন সমস্যা থাকে servicing এর সময় সেই ম্যাকানিকের চোখে ধরা পড়বে।
তখন সেটা ঠিক করিয়ে নিলেই কিছুদিন সমস্যা ছাড়াই চলতে পারবেন।
জীবনের প্রয়োজনে গাড়ী

Post Reply

Return to “অটোমোবাইল”